খিদে পেলে সোনার গয়না খেতেন যুবতি

প্রকাশিত: ২৫ জুলাই, ২০১৯ ০৪:০৭:৩০

খিদে পেলে তিনি খেয়ে ফেলতেন সোনার আংটি, কানের দুল, চেইন, কয়েনসহ কত কী। শেষে পেটের ব্যথায় ডাক্তারকে শরণ। দীর্ঘ অস্ত্রোপচার। যুবতির পেট থেকে উদ্ধার দেড় কেজি গয়নাগাঁটি!

এমন কাণ্ডই ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বীরভূমে। জি নিউজের বাংলা অনলাইন সংস্করণ প্রতিবেদনে জানিয়েছে, দীর্ঘ অস্ত্রোপচারের পর ২২ বছরের ওই তরুণীর পেট থেকে এক কেজি ৬৪০ গ্রাম গয়নাগাঁটি উদ্ধার করেছেন বীরভূমের রামপুরহাট সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের চিকিৎসকেরা।

অস্ত্রোপচার করে রোগীর পাকস্থলী থেকে মিলেছে ৬০টি কয়েনসহ সোনার বালা, আংটি, কানের দুল, চেইন প্রভৃতি। দীর্ঘ এক ঘণ্টা ১৫ মিনিট ধরে চলে অস্ত্রোপচার। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বমি ও পেটের যন্ত্রণা নিয়ে কয়েক দিন আগে রামপুরহাট সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি হন মাড়গ্রামের কানাইপুরের বাসিন্দা রুনি খাতুন।

চিকিৎসক সিদ্ধার্থ বিশ্বাস জানিয়েছেন, এক্স-রে দেখে তাঁর পেটে ধাতব কিছু রয়েছে বলে টের পান তাঁরা। পরে অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। চিকিৎসক সিদ্ধার্থ বিশ্বাসের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের একটি দল অস্ত্রোপচার শুরু করে।

অপারেশন শেষে তরুণীর পেট থেকে বের হয় ৬০টি কয়েন, সোনার চেইন, আংটি, বালা, ঘড়ি, কানের দুল, নাকের নথ, পায়ের নূপুরসহ অনেক কিছুই। রোগীর পরিবার বলছে, ওই তরুণী মানসিকভাবে ভারসাম্যহীন ছিলেন। খিদে পেলেই গয়নাগাঁটি খেয়ে ফেলতেন। আর সেগুলো পাকস্থলীতে আটকে গিয়েছিল।

প্রজন্মনিউজ২৪/রেজাউল

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ