‘কালো টাকা সাদা করার সুযোগ জনগণ পছন্দ করে না’

প্রকাশিত: ২৬ জুন, ২০১৯ ০১:২৭:৪৮

বিকল্পধারার প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেছেন, ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের বাজেটে ঢালাওভাবে কালো টাকা সাদা করার সুযোগ দেওয়া হয়েছে। যা জনগণ পছন্দ করে না।

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবে যুক্তফ্রন্টের উদ্যোগে এবং বিকল্পধারার আয়োজনে ‘বাজেট ২০১৯-২০২০ বাস্তবায়ন ও চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।

বি চৌধুরী উপজেলায় ট্যাক্স সেন্টার করার প্রস্তাবের জন্য সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, এটা সরকারের একটি ভালো উদ্যোগ। তবে এটা কর বৃদ্ধি করে নয় বরং করের নেটওয়ার্ক বাড়াতে হবে। উপজেলার করদাতাদের উৎসাহিত করার জন্য তাদের প্রণোদনা দিতে হবে। তাদের সরকারি বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে আমন্ত্রণ জানাতে হবে।

তিনি দেশের জ্যেষ্ঠ নাগরিকদের জন্য বিভাগীয় সদরে ৫ হাজার বেডের হাসপাতাল স্থাপন এবং তাদের বিভিন্ন রোগের জন্য ওষুধের দাম শতকরা ৫০ ভাগ কমানোর দাবি জানিয়েছেন।  

ক্যানসারের ওষুধের দাম কমানোর প্রস্তাবের জন্য সরকারকে সাধুবাদ জানিয়ে বি চৌধুরী বলেন, পাঁচটি বড় রোগ ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ, কিডনি  ও লিভারের বিভিন্ন রোগে ব্যবহৃত ওষুধের দাম শতকরা ৫০ ভাগ কমানো উচিত। বিভাগীয় শহরে জ্যেষ্ঠ নাগরিকদের জন্য ৫ হাজার বেডের হাসপাতাল নির্মাণ সময়ে দাবি।

তিনি মুক্তিযোদ্ধা ভাতা শতকরা ২০ ভাগ এবং এবং বয়স্ক ভাতা বাড়ানোর জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিওভুক্তির আশ্বাসের জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে বি চৌধুরী বলেন, তবে বাজেটে শিক্ষার উন্নয়নে দৃঢ় পদক্ষেপ নেই। পৃথিবীর সঙ্গে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে হলে আমাদের বিজ্ঞানমনস্ক শিক্ষাকে অগ্রাধিকার দিতে হবে।

বি চৌধুরী ভারতে বাজেটে সে দেশের জ্যেষ্ঠ নাগরিকদের আয়করের ক্ষেত্রে বিভিন্ন সুবিধা দেওয়ার কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘আমাদের দেশের ৬০ বছর পর্যন্ত উৎপাদনশীল জনগোষ্ঠীর জন্য আয়কর ৫ লাখ এবং ৬০ থেকে ৮০ এবং ৮০-এর উর্ধ্বে জ্যেষ্ঠ নাগরিকদের ৮ লাখ টাকা পর্যন্ত আয়কর মওকুফ করা উচিত। কারণ তারা যে আয় তারা করেন তা থেকে ক্যানসার, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ, কিডনি ও অর্ধাঙ্গ রোগের ওষুধ কিনতে তাদের আয়ের শতকরা ৮০ ভাগ টাকা খরচ হয়ে যায়।’ কৃষকের সমস্য সমাধানে আরো আন্তরিক হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

যুক্তফ্রন্টের প্রধান সমন্বয়ক ও প্রেসিডিয়াম সদস্য গোলাম সারোয়ার মিলনের সভাপতিত্বে এবং বাসদের সভাপতি সরদার শামস আল মামুনের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বিকল্পধারার মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান এমপি, বিকল্পধারার প্রেসিডিয়াম সদস্য শমশের মবিন চৌধুরী বীরবিক্রম, বিকল্পধারার প্রেসিডিয়াম সদস্য মাহী বি চৌধুরী এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য মাজহারুল হক শাহ চৌধুরী, বিকল্পধারার প্রেসিডিয়াম সদস্য ডা. রফিকুল ইসলাম চৌধুরী, বিএলডিপির চেয়ারম্যান নাজিমউদ্দিন আল আজাদ, জনদলের চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান জয় চৌধুরী, লেবার পার্টির চেয়ারম্যান হামদুল্লাহ আল মেহেদী, বাংলাদেশ শরীয়া আন্দোলনের আমীর মাওলানা মাসুম বিল্লাহ, বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব গোলাম মোস্তফা ভূইয়া, এনডিপি মহাসচিব মঞ্জুর হোসেন ঈসা. বিকল্পধারার সহ-সভাপতি এনায়েত কবীর, বাংলাদেশ জনদলের মহাসচিব সেলিম আহাম্মেদ, লেবার পার্টির  মহাসচিব আবদুল্লাহ আল মামুন, বিকল্পধারার সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার ওমর ফারুক, বাংলাদেশ জনতা লীগের চেয়ারম্যান ওসমান গণি বেলাল, জনতা লীগের কো-চেয়ারম্যান শাহ মোহাম্মদ আসলাম হোনাইন, বিকল্পধারার প্রচার সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মেসবাহ উদ্দিন জুন্নু, বিকল্পধারার নেতা নবাব বাহাদুর প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

 

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ