হঠাৎ ক্রেতা-শূন্য হয়ে পড়েছে আড়ং

প্রকাশিত: ০৪ জুন, ২০১৯ ০৭:৩৮:০০

আজকের রাতটি পোহালে ঈদুল ফিতর। কাপড়ের দোকনগুলোতে বেচাকেনা নিয়ে তুমুল ব্যস্ততা। কিন্তু হঠাৎ করেই ক্রেতাশূন্য হয়ে পড়েছে দেশের শীর্ষস্থানীয় ব্র্যান্ড আড়ং। আজ ৪ জুন, মঙ্গলবার রাজধানীতে আড়ংয়ের কয়েকটি শাখা ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

বিশ্বের এক নম্বর বেসরকারি সংস্থার (এনজিও) খেতাব পাওয়া ব্র্যাকের সহযোগী প্রতিষ্ঠান আড়ং। তবে প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে ক্রেতারা দীর্ঘদিন ধরে নানা অভিযোগ করে আসছেন। সর্বশেষ গতকাল ৩ জুন, সোমবার আড়ংয়ের উত্তরা শাখাকে সাড়ে চার লাখ টাকা জরিমানা করে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

আজ বেলা ১১টার দিকে রাজধানীর ধানমন্ডির সাইন্সল্যাব এলাকায় আড়ংয়েল শাখায় দেখা যায়, পুরো তিন তলায় ৫ থেকে ৬ জন ক্রেতা। তবে পাশেই অন্য দোকানগুলোতে বেশ ভিড়।

বেলা পৌনে ১২টার দিকে বসুন্ধরা শপিং কমপ্লেক্সের আড়ং শাখায় গিয়েও ক্রেতাদের তেমন উপস্থিতি দেখা যায়নি। এ বিষয়ে আড়ংয়ের কোনো কর্মকর্তা-কর্মচারী মন্তব্য করতে রাজি হননি।

বসুন্ধরা শপিং সেন্টারের আড়ং শাখায় এক ক্রেতা বলেন, আড়ং ক্ষমতা দেখিয়ে নিজেদের অপরাধ ঢাকার চেষ্টা করছে। তারা খুবই নোংরা মানসিকতার পরিচয় দিয়েছে।

‘আমি আড়ং থেকেই কাপড় কিনতে চেয়েছিলাম। কিন্তু এই ঘটনার পরে আর কিনব না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছি। দেখতে এসেছিলাম মানুষ কেমন প্রতিবাদ করছে,’ বলেন ওই ক্রেতা।

সাইন্সল্যাব আড়ংয়ে আরেক ক্রেতা বলেন, ‘আড়ং অনেক বেশি দাম নেয় জেনেও অনেকে এখানে আসেন। তবে কাল যে ঘটনা ঘটেছে। এরপরে আড়ং বর্জন করা উচিত।’

‘মেয়ে একটা জামা আগেই পছন্দ করে রেখেছিল। তার জেদের কারণেই কিনতে এসেছি। না হলে আসতাম না,’ যোগ করেন তিনি।

আরেক ক্রেতা বলেন, সবচেয়ে বড় কথা সরকারের ইচ্ছের অভাব রয়েছে। আড়ং তো আর কাউকে বদলি করে দিতে পারে না। এটা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় করেছেন। তাই আড়ংয়ের চেয়ে তাদের দায় বেশি।

প্রসঙ্গত ৩ জুন আড়ংয়ের উত্তরা শাখাকে সাড়ে চার লাখ টাকা জরিমানা করার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে মোহাম্মদ শাহরিয়ারকে বদলির আদেশ দেন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। পরে সমালোচনার মুখে তা স্থগিতও করা হয়।

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন