‘স্কুলে হেঁটে গেলে, যানজট থেকে মুক্তি মেলে’

প্রকাশিত: ১৪ মে, ২০১৬ ১২:৩৯:২১

নিরাপদে ও স্বাচ্ছন্দ্যে স্কুলে যেতে চায় তারা। কিন্তু পারে না। বড় সমস্যা তীব্র যানজট। সমস্যার সমাধানে রং তুলি নিয়ে তারা হাজির হলো রাজধানীর রায়েরবাজারে। একে একে দেয়ালে লিখল সচেতনতামূলক বার্তা। সমাধানের শুরুটা নিজেরাই করতে চায়। লিখল, যানজট কমাতে হেঁটেই স্কুলে যেতে চায় তাঁরা।

আজ শনিবার সকালে রাজধানীর রায়েরবাজার এলাকায় এমন অনেক খুদে শিক্ষার্থী দেয়াল লিখনের মাধ্যমে সচেতনতামূলক কার্যক্রমে অংশ নেয়। কর্মসূচিটি আয়োজন করে ওয়ার্ক ফর বেটার বাংলাদেশ নামে একটি বেসরকারি সংগঠন। সহযোগিতায় ছিল ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন।

সকাল থেকেই ধানমন্ডি কচিকণ্ঠ হাইস্কুল ও ঢাকা আইডিয়াল ক্যাডেট স্কুলের শিক্ষার্থীরা আসতে শুরু করে রায়েরবাজার বৈশাখী খেলার মাঠে। শতাধিক শিক্ষার্থী আসার পর কারও হাতে দেওয়া হয় তুলি, কারও হাতে রঙের পাত্র এবং অন্যদের হাতে সচেতনতামূলক বার্তার কাগজ। লেখার জন্য আগেই বৈশাখী খেলার মাঠ থেকে জাফরাবাদসহ শংকর বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত ২০টি দেয়াল নির্ধারণ করা হয়। ২০টি দলে ভাগ করে দিয়ে শিক্ষার্থীদের বলা হলো লিখতে। একে একে সবাই লেগে পড়ল দেয়াল লিখনে। মাত্র ৩০ মিনিটেই দেয়ালগুলো ভরে গেল সচেতনতামূলক বার্তায়।চলছে দেয়াল লিখন। ছবি: জাহিদুল করিম

চলছে দেয়াল লিখন। ছবি: জাহিদুল করিম

মোট সাতটি বার্তা লেখা হয় এসব দেয়ালে। এগুলো হলো, শিশু স্কুলে যাচ্ছে হেঁটে, গাড়ি চালান সাবধানেতে। স্কুলে হেঁটে গেলে, যানজট থেকে মুক্তি মেলে। হর্ন বাজানো থেকে বিরত থাকি, শব্দ দূষণমুক্ত পরিবেশ গড়ি। হেঁটে যাই বিদ্যালয়, দেহ মন সুস্থ রয়। হেঁটে হেঁটে স্কুলে যাই, অর্থ-স্বাস্থ্য-পরিবেশ বাঁচাই। স্কুলে হেঁটে যাই, জ্বালানির ওপর চাপ কমাই। গাড়ির গতি কম হলে, যাতায়াত নিরাপদ হবে।

শিক্ষার্থীরা জানায়, রাস্তাঘাট নিরাপদ করার জন্য তারা এ দেয়াল লিখন কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছে। এ কাজে অংশ নিতে পেরে তারা আনন্দিত।

কর্মসূচির সময় ওয়ার্ক ফর বেটার বাংলাদেশ ট্রাস্ট এর পরিচালক গাউস পিয়ারী, রায়েরবাজার হাই স্কুলের গভর্নিং বোর্ডের চেয়ারম্যান হাসান উল হামিদ খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন