শরীরকে ঠান্ডা রাখতে যা করবেন এই গরমে

প্রকাশিত: ১১ মে, ২০১৯ ০৫:৪২:০০ || পরিবর্তিত: ১১ মে, ২০১৯ ০৫:৪২:০০

গরমের মাত্রা দিনদিন বেড়েই চলেছে যেন। প্রচণ্ড গরমের কারণে অতিরিক্ত ঘাম ঝরে হতে পারে ডিহাইড্রেশন, কখনোবা হিট স্ট্রোকের মতো মারাত্মক সমস্যা! তাই এই গরমে শরীরকে ভেতর থেকে ঠান্ডা রাখতে হবে। আমাদের প্রতিদিনের জীবনযাপন, খাদ্যাভ্যাস ইত্যাদিতে একটু নিয়ম মেনে চললেই শরীর থাকবে ঠান্ডা। চলুন জেনে নেয়া যাক এই গরমেও শরীর ঠান্ডা রাখতে কী করবেন-

গোসলে প্রশান্তি

অভ্যাস করুন প্রতিদিন মাথার তালু ভিজিয়ে গোসল করার। বড় চুল হলে চুল বেঁধে মাথায় পানি ঢালুন। স্ক্যাল্পও পরিষ্কার রাখতে হবে। প্রতিদিন বাইরে বের হলে দু’দিন পরপর শ্যাম্পু করা ভালো। গরমে স্ক্যাল্পে ঘাম জমে চুলকানি হতে পারে। নিম পাতা সেদ্ধ করা পানি বা চায়ের লিকার দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। চুলের স্বাস্থ্যও বজায় থাকে। চুলের কন্ডিশনিংও দরকার। ঈষদুষ্ণ নারিকেল তেল চুলে, স্ক্যাল্পে মাসাজ করে নিন। নারকেল তেল মাথা ঠান্ডা রাখে। পরে শ্যাম্পু করুন। চুল নরম হবে।

আরামদায়ক পোশাক

পোশাকে আরাম জরুরি। সেক্ষেত্রে সুতি বা লিনেনের পোশাকেই আস্থা রাখা ভালো। আঁটোসাটোর পরিবর্তে ঢিলেঢালা পোশাকেই আরাম বেশি। যেমন লেগিংসের বদলে পালাজ়ো, সুতির মিড লেংথ বা ম্যাক্সি ড্রেস, কলারের পরিবর্তে খোলা গলা, প্যান্টসের পরিবর্তে লং স্কার্ট জাতীয় পোশাক বাছতে পারেন। পোশাকের রংও খুব গুরুত্বপূর্ণ। সাদা, আকাশি নীল, বাসন্তী, হালকা গোলাপির মতো চোখজুড়োনো নরম রঙের পোশাক বেছে নিন।

কেমন খাবার খাবেন

গরমে বেশি তেল-ঝাল একেবারেই নয়, বরং এমন খাবার খান, যা শরীরের ভিতরের তাপমাত্রা কমাতে সাহায্য করে। পদে থাকতে হবে পর্যাপ্ত পরিমাণ মিষ্টি ও তেতো। বেছে নিন মৌসুমী ফল ও সবজি। সুস্থ মানুষ তো বটেই, এমনকি ডায়াবেটিস থাকলেও পরিমিত পাকা আম খাওয়া দরকার। ভিটামিন বি সমৃদ্ধ আম স্নায়ু ঠান্ডা রাখে, এনার্জি বজায় রাখে।

অল্প পরিমাণ দই খান প্রতিদিন। ইফতারে ভাজাভুজি না খেয়ে দইয়ের ঘোল খেতে পারেন। ফল রাখুন খাবারের তালিকায়। আম ছাড়াও খান আঙুর, আনারস, তরমুজ, ফুটি, চেরি, নাশপাতি, আপেল, বেদানা।

এমন সবজি খান, যা শরীর ঠান্ডা রাখে। যেমন লাউ, কাঁচকলা ইত্যাদি। লাউয়ের ঘণ্ট কিংবা কাঁচকলার ঝোল খেতে পারেন। শুরুর পাতে অল্প নিমপাতা ভাজা থাকুক। মশলার মধ্যে মশলা হিসেবে রাখুন মৌরি, দারুচিনি, ধনে, এলাচ, পোস্ত। এই গরমে অতিরিক্ত লবণ, তেল, গোলমরিচ, ভিনিগার, রসুন, টমেটো, মুলো, পালং, সরিষা এড়িয়ে যাওয়া ভালো।

মাংস শরীরের তাপমাত্রা বাড়িয়ে দেয় ভীষণভাবে। রেড মিটের পাশাপাশি মুরগির মাংসও এড়িয়ে যান। তার পরিবর্তে খান নানা ধরনের টাটকা মাছ। বরফের বা চালানের মাছ বর্জন করে তাজা, ছোট মাছের পদ কম মশলা দিয়ে রান্না করুন। শরীর ঠান্ডা রাখতে তেঁতুল, জলপাই, কাঁচা আমের পাতলা টক রাখতে পারেন খাবার পাতে।

পর্যাপ্ত পানি পান করুন। শরীর ঠান্ডা রাখতে পুদিনার পানি খেতে পারেন। বরফঠান্ডা নয়, কলসি বা কুঁজো থেকে পানি পান করাই শ্রেয়। রাস্তাঘাটে তেষ্টা মেটাতে খোলা শরবত নয়, ডাবের পানি খান। সবশেষে হাতে সময় নিয়ে বাইরে বের হন। অতিরিক্ত ছুটোছুটি ক্লান্তি ডেকে আনে। সঙ্গে ঘামও। আর হাতব্যাগে অবশ্যই রাখুন পানির বোতল, ছাতা ও রুমাল।

প্রজন্মনিউজ২৪/মুজাহিদ

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন