বাংলা ভাষা আজ কেন মিশ্রিত হচ্ছে?

প্রকাশিত: ০৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯ ০৬:০৫:০২ || পরিবর্তিত: ০৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯ ০৬:০৫:০২

আব্দুল কাইয়ুম : ফেব্রুয়ারী মানেই আমাদের কাছে এক চেতনার মাস।  এ মাসে রফিক, সালাম, জব্বার সহ আরো অনেক শহীদ তাদের জীবনকে বিলিয়ে দিয়েছেন মাতৃভাষার জন্য।  আর আমাদের ভাষাকে টিকিয়ে রাখার জন্য করেছে হাজারো সংগ্রাম।  যদিও বাংলা ভাষাকে অক্ষুন্ন রাখতে চলছে নানা আয়োজন তার মধ্যে অমর একুশে বইমেলা, জাতীয় কবিতা ও সাহিত্য প্রতিযোগিতা এবং সারাদেশে হাজারো গ্রন্থশালা।

আসল কথা হলো বহুকষ্টে অর্জিত ভাষাকে আমরা কতটুকু মূল্যায়ন করতে পারছি।  সঠিকভাবে কি তার ব্যবহার করছি?  নাকি তাকে বিকৃত করে আমাদের নিজের মতো করে বিদেশি ভাষা মিশ্রন করে কথা বলছি।  চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীর সাথে কথা বলছিলাম। কথা বলা অবস্থায় তার মধ্যে যে বিষয়টি সবচেয়ে বেশি লক্ষ্য করি ,  সে অল্প কিছুক্ষণ কথা বলার মধ্যে প্রায় ৩৫ শতাংশ ইংরেজি শব্দ ব্যবহার করে আমার সাথে কথা বলেছে।  আমি মনে করেছিলাম এটা অন্য কোন ভাষা।  মিশ্রিতভাবে কথা বলার কারণ হিসেবে জিজ্ঞাসা করলে সে বলে, বাংলা ভাষায় ইংরেজি ব্যবহার না করলে কথা বলার মাঝে পরিপূর্ণতা পায় না।

এখন চিন্তা করার বিষয় বাংলা ভাষার মাঝে যদি ইংরেজির ব্যবহার না করে তাহলে নাকি তার পূর্ণতা পায় না।  শুধু যে সে তা নয় , আমাদের দেশে অসংখ্য ছাত্র-ছাত্রী আছে যারা বাংলার মাঝে ইংরেজী ভাষা মিশ্রিত করে কথা বলতে পছন্দ করে।  বিশেষ করে আমাদের দেশের বিভিন্ন উপস্থাপনা ও রেডিও গুলোতে এর প্রভাব একটু বেশি লক্ষ্য করা যায়।  আমার প্রশ্ন তাহলে কেন আমরা এই ভাষার জন্য এত রক্ত দিয়েছি।  আর এত সংগ্রাম করেছি এই মাতৃভাষা রক্ষার জন্য।

এ বিষয়ে বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, ”আমাদের দেশে পাশ্চাত্য শিক্ষার প্রভাব বেশি হওয়ায় আজ আমাদের বাংলা ভাষার এই অবস্থা। এছাড়াও দিন দিন আমাদের পাঠ্য বই ও বিভিন্ন পরীক্ষাগুলোতে যেভাবে ইংরেজী কে প্রাধান্য দেয়া হচ্ছে তাতে করে শিক্ষার্থীরা বাংলার চেয়ে ইংরেজিকে বেশি প্রয়োজনীয় বলে মনে করছে ”  বাংলা ভাষার উপর যদি এভাবে অত্যাচার চলতে থাকে তাহলে হয়তো আমাদের মায়ের ভাষা একদিন হারিয়ে যেতে পারে।

বাংলা ভাষাকে টিকিয়ে রাখতে হলে আমাদের সঠিক ভাবে তার মূল্যায়ন করতে হবে। বেশি কার্যকর হবে যদি সরকার ভাষাকে রক্ষার জন্য যথেষ্ট পদক্ষেপ নেন। আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থায় বাংলাকে বেশি প্রাধান্য দেয়া অত্যন্ত জরুরি। যদি আমরা নিজেরাই সতর্ক না হই তাহলে এত কিছু করে কোন লাভ হবে না। তাই চলুন আমরা আমাদের মায়ের ভাষা কে সঠিক মূল্যায়ন করতে শিখি। এবং তার যথাযথ ব্যবহার করি। আমরা যখন বাংলাতে কথা বলব তখন তার মাঝে কোন বিদেশি শব্দ ব্যবহার না করি। তাহলে সেই সকল শহীদদের আত্মার শান্তি পাবে যারা এই বাংলা ভাষার জন্য তাদের জীবনকে অকাতরে বিলিয়ে দিয়েছেন।

প্রজন্মনিউজ২৪

 

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন





ব্রেকিং নিউজ