পাশের কেন্দ্র থেকে প্রশ্ন ধার করে এনে ৪০ মিনিট পর পরীক্ষা

প্রকাশিত: ০২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯ ০৪:৪৫:১৪

কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার একটি কেন্দ্রে এসএসসি পরীক্ষা শুরু হওয়ার ৪০ মিনিট পর রচনামূলক প্রশ্ন হাতে পায় পরীক্ষার্থীরা। শনিবার উপজেলার দুয়ারিয়া এজি মডেল একাডিমী কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। ওই কেন্দ্রে ৭টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৫৭৬ জন পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন।

কেন্দ্রের একাধিক পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকরা জানান, বাংলা প্রথমপত্র পরীক্ষার বোর্ড নির্ধারিত রচনামূলক প্রশ্ন কেন্দ্রে না থাকায় উপজেলার বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে প্রশ্ন সংগ্রহ করে প্রায় ৪০ মিনিট পর তা বিতরণ করেন কেন্দ্র কর্তৃপক্ষ।

সরেজমিনে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায়, ঘটনার পর ক্ষুব্ধ অভিভাবকরা কেন্দ্রের মূল ফটকে জড়ো হলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রবীন্দ্র চাকমা ও কেন্দ্র সচিব মো. আবু সেলিম ভূঁইয়া অভিভাবকদের বিষয়টি বুঝাচ্ছেন। দুয়ারিয়া এজি মডেল একাডেমীর অধ্যক্ষ ও কেন্দ্রসচিব মো. আবু সেলিম ভূইয়া জানান, সকালে প্রশ্ন আনতে গিয়ে আমাদের কেন্দ্রে প্রশ্নের প্যাকেটে প্রশ্ন কম মনে হলে বিষয়টি উপজেলা মাধ্যমিক কর্মকর্তাকে জানাই।

তখন তিনি কেন্দ্রে এসে প্যাকেট খুলতে বলেন।কেন্দ্রে এসে প্যাকেট খুলে দেখতে পাই প্রশ্নের যে সেটে পরীক্ষা নেয়ার কথা সেই সেটটি আমাদের প্যাকেটে নাই। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানালে তিনি উপজেলার বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে প্রশ্ন সংগ্রহ করে দিলে পরীক্ষা শুরু করা হয়।

এ বিষয়ে দেবিদ্বার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও) রবীন্দ্র চাকমা জানান, শনিবার বাংলা প্রথম পত্র পরীক্ষা ছিল। কিন্তু দুয়ারিয়া এজি মডেল একাডেমি কেন্দ্রে বোর্ড নির্ধারিত প্রশ্নের সেট না থাকায় পরীক্ষা বিলম্বিত হয়। পরে পরীক্ষার্থীদের লস সময় ৪৫ মিনিট দেয়া হয়। এ ঘটনায় তদন্ত চলছে। দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রজন্মনিউজ২৪/ওসমান

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন