জাককানইবি'তে স্থানীয় সন্ত্রাসীদের হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

প্রকাশিত: ২০ জানুয়ারী, ২০১৯ ০৫:৪০:৫১

জাককানইবি প্রতিনিধি: জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের(জাককানইবি) ইইই বিভাগের মেধাবী শিক্ষার্থী রাজিব হোসেনের উপর অন্যায়ভাবে অতর্কিত হামলার প্রতিবাদে আজ মানববন্ধন করে বিশ্ববিদ্যালয় বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা।সকাল ১১:৩০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি করে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা।এতে বক্তব্য রাখেন ইইই বিভাগ সহ অন্যান্য বিভাগের একাধিক শিক্ষার্থী,বিজ্ঞান অনুষদ শাখা ছাত্রলীগ এবং আরো বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর উজ্জ্বল ড.উজ্জ্বল কুমার প্রধান ছাত্র উপদেষ্টা প্রফেসর ড.শাহাবুদ্দীন বাদল।

উক্ত মানববন্ধনে ইইই বিভাগের দ্বিতীয় ব্যাচের ছাত্র এজাজ বলেন,বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার বদৌলতে এই গ্রাম্য এলাকা ক্রমান্বয়ে শহরায়নে পরিণত হচ্ছে। অথচ আজ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা স্থানীয় সন্ত্রাসীদের হাতে বিভিন্ন সময় বিভিন্নভাবে হামলার শিকার হচ্ছে।একের পর এক ঘটনা ঘটেই যাচ্ছে।বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা অসহায়।তিনি রাজীব এর উপর স্থানীয় সন্ত্রাসীদের হামলায় অতি দ্রুত আইনুনাগ ব্যাবস্থা গ্রহণ করার জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

মানববন্ধনে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর ড.উজ্জ্বল কুমার প্রধান তাঁর বক্তব্যে বলেন, উক্ত ঘটনা জানার সাথে সাথে বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য প্রফেসর ড.এ.এইচ.এম. মোস্তাফিজুর রহমান নির্দেশে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা ঘটনা স্থলে উপস্থিত হয় এবং আমরা তাৎক্ষণিক আহত শিক্ষার্থীর সু চিকিৎসা গ্রহণ করার ব্যবস্থা করেছি।তিনি বলেন,বিশ্ববিদ্যালয় পুলিশ ফাঁড়ি সহ ত্রিশাল পুলিশ প্রশাসনের সাথে আমরা যোগাযোগ করছি।অতি দ্রুত সময়ের মধ্যে তদন্ত কমিঠি গঠন করে দুষ্কৃতিকারীদের চিহ্নিত করে আইনুনাগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে এবং ছাএছাএীদের দাবী দাবা যথাসাধ্য বাস্তুবায়ন করা হবে।মানববন্ধন শেষে শিক্ষার্থীদের একটি প্রতিনিধি দল ৬দফা সম্বলিত একটি স্মারকলিপি বিশ্ববিদ্যালয় উপচার্য বরাবর পাঠান।দফা গুলি ছিলো--

১. রাজিবের উপর অতর্কিত হামলার সুষ্ঠু বিচার।

২. শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা  ।

৩. বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসন সংকট দূরীকরণ।

৪.মেসের নিরাপত্তা ও সকল চুরির ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত।

৫. স্থানীয় সন্ত্রাসীদের নির্যাতন রোধে  সুষ্ঠু ব্যবস্থা গ্রহণ।

৬.প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণে প্রশাসনের অনীহা দূরীকরণ ও  অতি দ্রুত পদক্ষেপ নিশ্চিত করণ।   

এসময় আরো বক্তব্য   রাখেন নোবেল, ইভান, আকাশ  সহ অনেকে।তারা সকলেই  অতি সত্ত্বর উক্ত ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে যথাযথ আইনুনাগ ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে অনুরোধ করেন।উল্লেখ্য , বিশ্ববিদ্যালয়ের   ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১৬/১৭ সেশনের শিক্ষার্থী মো রাজীব হোসেন স্থানীয় কিছু সন্ত্রাসীদের হামলায় গুরুতর আহত হন।গত বুধবার সন্ধায় ত্রিশাল চড়পাড়া আশির্বাদ ভিলা মেসের সামনে ঘটনাটি ঘটে।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত শিক্ষার্থীদের দেয়া তথ্য অনুযায়ী জানা যায় গত সোমবার সন্ধার দিকে রাজীব মেসে ফেরার সময় লাল মিয়ার ছেলে তাজামুল  ওর চোখে লাইট ধরে, রাজীব প্রতিবাদ করতে গেলে হঠাৎ করেই তারা রাজীবের উপর চড়াও হয়ে বসে। দৌড়ে রাজীব যখন তার রুমে ঢুকতে চায় তখন তাজামুলের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী  রাজীবের হাত থেকে তার রুমের তালা কেড়ে নিয়ে মাথায় আঘাত করে, আর উপর্যুপরি মারতে থাকে।একপর্যায়ে যখন রাজীব অচেতন হয়ে যায় তখন তারা রাজীব কে রুমের ভিতর আটকিয়ে রেখে মেসের মেইন গেইট লাগিয়ে দেয়। পরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আর পুলিশ গিয়ে রাজীব কে উদ্বার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ নিয়ে যায়।

প্রজন্মনিউজ২৪/মোঃ ইমরান আলী

 

 

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন