ফলাফল বন্ধে রিট ও নির্বাচন অফিস ঘেরাও করবে ঐক্যফ্রন্ট

প্রকাশিত: ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১২:৩৭:৪৯

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষনেতা ড. কামাল হোসেন বলেছেন, আন্দোলনের অংশ হিসেবে আমরা নির্বাচনে অংশ নিয়েছি। ভোটের পরও আমাদের আন্দোলন চলবে। আন্দোলনের অংশ হিসেবে ২৯৯ আসনের প্রার্থীরা জনবল নিয়ে জেলা নির্বাচন অফিস ঘেরাও করবে। এছাড়া মামলা ও রিটের বিষয়টিও ভাবছে জোটটি। এসব তথ্য জানিয়েছেন ঐক্যফ্রন্টের প্রধান নেতা ড. কামাল হোসেন। রোববার ভোট প্রদানের পর বেইলি রোডে নিজ বাসভবনে ড. কামাল সাংবাদিকদের এ সব কথা বলেন।

ড. কামাল হোসেন তিনি বলেন, জেলা নির্বাচন অফিস ঘেরাও করার পর পরবর্তীতে ২৯৯ আসনের প্রার্থীরা ঢাকায় নির্বাচন কমিশনের প্রধান কার্যালয় ঘেরাও করবেন। তিনি বলেন, সারাদেশে গণহারে ভোট ডাকাতি চলছে। সবাইকে বের করে দেওয়া হচ্ছে। তা জানা সত্ত্বেও ভোটের মাঠ থেকে আমরা সরে যাব না। আমরা যখন নির্বাচনে এসেছি, তখনই সরকারি দল আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। ওরা চাইছে আমরা যাতে নির্বাচনের মাঠ ছেড়ে চলে যাই। কিন্তু তাদের সে স্বপ্ন বাস্তবায়ন হবে না।

ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা বলেন, আমরা মামলা করার বিষয়টি নিয়েও আমরা ভাবছি। ২৯৯ আসনে প্রার্থীরা নিজ নিজ এলাকায় নির্বাচন সংক্রান্ত বিষয়ে মামলা করবে। শত শত মামলা হবে। নির্বাচনের ফলাফল বন্ধ বা পুনঃনির্বাচনের বিষয়ে রিট করার পরিকল্পনা আমাদের আছে। সব বিষয় ঐক্যফ্রন্টের লিয়াজোঁ কমিটি বসে সিদ্ধান্ত নেবে। রিট করার আইনি বিষয়গুলো দেখা হচ্ছে। আদালত খুললে পদক্ষেপ নেওয়ার একটা পরিকল্পনা আমাদের রয়েছে।

এর আগে ড. কামাল হোসেন ভিকারুননিসা স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে ভোট দেন। ওই কেন্দ্রের পরিবেশ সম্পর্কে সন্তোষ প্রকাশ করলেও ড. কামাল বলেন, দেশের মানুষ হিসেবে সবাইকে ভোট দিতে হবে। আমি সবাইকে দেখে উৎসাহ পাচ্ছি। সকাল সকাল ভোট দিতে এসেছে সবাই। আমার মতো একজনকে দেখলাম লাঠিতে ভর দিয়ে ভোট দিতে এসেছে। শীতের সকালে কেন্দ্রে ভিড় হয়ে আছে। তরুণ সমাজও এসেছে। এসব দেখে আমি উৎসাহ পাচ্ছি।

সময় সাংবাদিকেরা দেশের সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে কামাল হোসেনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে মন খারাপ করাতে চাই না। মিনিটে মিনিটে ফোন পাচ্ছি। রাতেই নাকি বিভিন্ন জায়গায় ভোট হয়েছে। এগুলো দুঃখজনক, লজ্জাজনক। পদক্ষেপ নিতে হবে। সারা দেশ থেকে যে খবর পাচ্ছি, তা উদ্বেগজনক। এটা শহীদদের সঙ্গে বেইমানি, বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে বেইমানি করা।

এজেন্ট নিয়ে প্রশ্ন করলে কামাল হোসেন বলেন, এখানে এজেন্ট আছে। তবে বাইরে অনেক জায়গায় আমরা এজেন্ট দিতে পারিনি। অনেক জায়গা থেকে খবর পাচ্ছি আমাদের এজেন্টদের বের করে দেওয়া হয়েছে। আমি দাবি করব এর তদন্ত হক।

তথ্যসূত্র:বাংলাদেশ প্রতিদিন

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন