‘হংসবলাকা’আসছে আট ঘণ্টা দেরিতে

প্রকাশিত: ০১ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৫:৫৩:২৩

নির্ধারিত সময়ের প্রায় আট ঘণ্টা পর দেশে আসছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের নতুন উড়োজাহাজ ‘হংসবলাকা’। বিমানের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আজ শনিবার রাত পৌনে ১২টার দিকে ড্রিমলাইনার ৭৮৭-৮ মডেলের সর্বাধুনিক প্রযুক্তির এই উড়োজাহাজটি পৌঁছানোর কথা।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের ব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) তাছমিন আকতার প্রথম আলোকে বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটল থেকে হংসবলাকার ছাড়তে দেরি হয়েছে। এ কারণে বিমানটি আজ বিকেলের পরিবর্তে রাতে ঢাকায় আসবে।

আজ বিকেল চারটার দিকে হংসবলাকা ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের সময় ছিল বলে বিমানের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। ২৯ নভেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটলে এভারেট ডেলিভারি সেন্টারে বিমানের কাছে মালিকানা হস্তান্তর করে নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িং।

নতুন উড়োজাহাজটি বুঝে নিতে বিমানের পর্ষদের সদস্যসহ ৩২ জন যুক্তরাষ্ট্র যান। এদের মধ্যে বেসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রণালয়, আইন মন্ত্রণালয়, সংসদ সচিবালয়, বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ ও অর্থায়নকারী ব্যাংকের প্রতিনিধিরা রয়েছেন।

‘হংসবলাকা’ নিয়ে বিমানবহরে উড়োজাহাজের সংখ্যা দাঁড়াবে ১৫টি। বিরতিহীনভাবে ১৫ ঘণ্টা বিমানটি চালিয়ে দেশে নিয়ে আসবেন চারজন পাইলট।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস ২০০৮ সালে মার্কিন বিমান নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িং কোম্পানির সঙ্গে ১০টি নতুন বিমান কিনতে ২ দশমিক ১ বিলিয়ন ইউএস ডলারের চুক্তি করে। এই ১০টির মধ্যে বিমান বহরে যুক্ত হয়েছে ৬টি উড়োজাহাজ। প্রথম ৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনার ‘আকাশবীণা’ ১৯ আগস্ট দেশে আসে।

চারটি ড্রিমলাইনার উড়োজাহাজের নাম পছন্দ করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাকি ২টি ড্রিমলাইনারের নাম হলো ‘গাঙচিল’ ও ‘রাজহংস’। এই ২টি উড়োজাহাজ ২০১৯ সালে বিমান বহরে যুক্ত হবে।

ড্রিমলাইনারে আসনসংখ্যা ২৭১টি। এর মধ্যে বিজনেস ক্লাসে আসন রয়েছে ২৪টি, বাকি ২৪৭টি আসন ইকোনমি ক্লাসের। বিজনেস ক্লাসে ২৪টি আসন ১৮০ ডিগ্রি পর্যন্ত সম্পূর্ণ ফ্ল্যাটবেড হওয়ায় যাত্রীরা আরামদায়কভাবে বিশ্রাম নিতে পারবেন। ড্রিমলাইনারে ৪৩ হাজার ফুট উচ্চতায় যাত্রীরা ওয়াই-ফাই সুবিধা পাবেন।

আগামী ১০ ডিসেম্বর থেকে হংসবলাকা বাণিজ্যিক ফ্লাইট শুরু করতে পারে বলে জানিয়েছে বিমান কর্তৃপক্ষ।

প্রজন্মনিউজ২৪/জামান

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ