দিনাজপুরে ব্যবসায়ী খুন

প্রকাশিত: ০৮ নভেম্বর, ২০১৮ ০৫:৫১:০৫ || পরিবর্তিত: ০৮ নভেম্বর, ২০১৮ ০৫:৫১:০৫

বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলায় এক কাঠ ব্যবসায়ীকে খুন করা হয়েছে।

আজ বেলা দুইটার দিকে উপজেলার ছোট মাগুরা গ্রামের ধানখেত থেকে তাঁর মাথাহীন ধড় উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে একজনকে আটক করে পৃলিশ।

নিহত ব্যবসায়ীর নাম মো. নুরুজ্জামান সরকার (৪৮)। তিনি বিরামপুর উপজেলার পৌর শহরের চাঁদপুর মহল্লার মৃত নঈমুদ্দিন সরকারের ছেলে। আটক ব্যক্তির নাম মো. রফিকুল ইসলাম। তিনি নিহত নুরুজ্জামানের ব্যবসায়িক অংশীদার ছিলেন।

নিহত ব্যক্তির পরিবারের সদস্যদের তথ্যমতে, রফিকুল ইসলামের কাছে কাঠ বিক্রির টাকা পেতেন নুরুজ্জামান। অনেক দিন পার হলেও সেই টাকা পরিশোধ করছিলেন না রফিকুল। সম্প্রতি রফিকুল বাকিতে কাঠ চান নুরুজ্জামানের কাছে। আগের পাওনা টাকা পরিশোধ না করলে বাকিতে আর কাঠ দেবেন না বলে রফিকুলকে জানিয়ে দেন নুরুজ্জামান। গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় পাওনা টাকা পরিশোধের কথা বলে বিরামপুর থেকে নুরুজ্জামানকে ডেকে নিয়ে যান রফিকুল। রফিকুলের বাড়ি নবাবগঞ্জের ছোট মাগুরা গ্রামে। নুরুজ্জামান পরিবারকে জানিয়ে রফিকুলের সঙ্গে মাগুরা গ্রামে যান। বাড়িতে ফিরতে দেরি হলে রাত আটটার সময় নুরুজ্জামানের স্ত্রী তাঁকে ফোন করেন। এ সময় নুরুজ্জামান জানান, তিনি রফিকুলের বাড়িতে আছেন। এরপর থেকে নুরুজ্জামানের মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। পরিবারের সদস্যেরা বিষয়টি পুলিশকে জানালে আজ বৃহস্পতিবার ভোরে রফিকুলকে আটক করে পুলিশ। বেলা দুইটার দিকে ছোট মাগুরা গ্রামের পাশের ধানখেত থেকে নুরুজ্জামানের মাথাহীন লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

বিরামপুর সার্কেলের জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার  মিথুন সরকার জানান, এ ঘটনায় রফিকুলকে আটক করা হয়েছে। নুরুজ্জামানের ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলায় পরিত্যক্ত অবস্থায় পাওয়া গেছে। এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। এ ঘটনায় জড়িত সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে।

প্রজন্মনিউজ২৪/মুহিব

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ