বাম দলগুলো বিজেপির রথ মোকাবিলায় মাঠে নামছে

প্রকাশিত: ০৮ নভেম্বর, ২০১৮ ১০:১১:২৯

ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে পশ্চিমবঙ্গে তিনটি সুসজ্জিত প্রচার রথ বের করতে যাচ্ছে বিজেপি। বামফ্রন্ট এই রথকে দেখছে ভারতের আসন্ন লোকসভা নির্বাচনকে ঘিরে বিজেপির সাম্প্রদায়িক উসকানির অংশ হিসেবে। আর এ জন্য তারাও পাল্টা কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছে।

বিজেপির ঘোষণা অনুযায়ী, প্রথম রথ তিন ডিসেম্বর বের হবে বীরভূম জেলার তারাপীঠ থেকে। দ্বিতীয় রথ বের হবে ৫ ডিসেম্বর কোচবিহার থেকে আর তৃতীয় রথ বের হবে ৭ ডিসেম্বর দক্ষিণ ২৪ পরগনার গঙ্গাসাগর থেকে।আর এই তিনটি রথ কলকাতায় এসে পৌঁছাবে ২২ জানুয়ারি। এরপরেই ২৩ জানুয়ারি কলকাতার ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে মহা সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে বিজেপির। এই সমাবেশে যোগ দেওয়ার কথা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির।

এদিকে এই রথকে মোকাবিলা করতে ছয় ডিসেম্বর পশ্চিমবঙ্গ জুড়ে বাম দলগুলো রাস্তায় নামার ঘোষণা দিয়েছে। ছয় ডিসেম্বর বাবরি মসজিদ ধ্বংসের দিনকে সামনে এনে তারা ওই দিন রাজ্যব্যাপী পালন করবে ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি দিবস’ ।মঙ্গলবার (৬ নভেম্বর) বামফ্রন্টের বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নেতারা। সিদ্ধান্ত হয়েছে সেদিন তারা কলকাতায় মহা মিছিল করবে।

একইদিন রাজ্যের প্রতিটি শহরেও তারা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে পথে নামবেন। ছয় ডিসেম্বরের কর্মসূচি উপলক্ষে বামফ্রন্ট ২১ নভেম্বর থেকে রাজ্যজুড়ে টানা ১৫দিন প্রচার অভিযান চালাবে।বামফ্রন্টের নেতৃবৃন্দ বলেছে, মন্দির-মসজিদ ইস্যুকে নতুন করে জাগিয়ে তুলে ভোটের বৈতরণি পার হওয়ার জন্য উদ্যোগ নিয়েছে বিজেপি। আর বিজেপিকে সেই সুযোগ না দিতে বামফ্রন্টও পাল্টা উদ্যোগ নিয়েছে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি দিবস পালনের।

বামফ্রন্টের মঙ্গলবারের বৈঠকে আরও সিদ্ধান্ত হয়, আগামী ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহে কলকাতার ব্রিগেড ময়দানে মহাসমাবেশ করবে তারা। সেই সমাবেশ থেকে বিজেপিকে বামফ্রন্ট বুঝিয়ে দেবে পশ্চিমবঙ্গে তারা এখন তৃতীয় নয়; দ্বিতীয় দলই।এ ছাড়া আগামী ৮ ও ৯ জানুয়ারি বাম ও শ্রমিক সংগঠনগুলি গোটা দেশে যে সাধারণ ধর্মঘট ডেকেছে তার প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানানো হয়েছে বামফ্রন্টের বৈঠকে।

বামফ্রন্টের এক নেতা প্রথম আলোকে বলেন, ‘কেন্দ্রে মোদি এবং রাজ্যে মমতা সরকারের বিরুদ্ধে নানা ইস্যুতে মানুষের ক্ষোভ বাড়ছে। এই অবস্থায় তৃণমূল ও বিজেপি এ রাজ্যে লোক দেখানো পারস্পরিক তরজায় নেমে মানুষকে বিভ্রান্ত করতে চাইছে। তাই আমরা এর বিরুদ্ধেই পথে নামছি।’

প্রসঙ্গত, ভারতের লোকসভার নির্বাচন আগামী মার্চ-এপ্রিলে হওয়ার কথা। এই নির্বাচনকে ঘিরে ইতিমধ্যে রাজ্যের রাজনৈতিক তৎপরতা তুঙ্গে। প্রতিটি রাজনৈতিক দলই প্রচারে নেমে পড়েছে।

প্রজন্মনিউজ২৪/জামান

 

 

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন





ব্রেকিং নিউজ