ঢাবিতে অনুষ্ঠিত হল ট্যুরিজম এর অতীত,বর্তমান ও ভবিষ্যৎ শীর্ষক প্রথম সেমিনার

প্রকাশিত: ০১ অগাস্ট, ২০১৮ ০৩:১০:১৯ || পরিবর্তিত: ০১ অগাস্ট, ২০১৮ ০৩:১০:১৯

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যনেজমেন্ট বিভাগের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয় “বাংলাদেশে ট্যুরিজম এর অতীত,বর্তমান ও ভবিষ্যৎ শীর্ষক সেমিনার” ।২৯ জুলাই, সকাল ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস অনুষদ ভবনের ড. হাবিবুল্লাহ কনফারেন্স হলে এটি অনুষ্ঠিত হয়।

ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যনেজমেন্ট বিভাগের চেয়ারম্যান ড.বদরুজ্জামান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের অতিরিক্ত সচিব,বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশন এর চেয়ারম্যান জনাব আখতারুজ্জামান খান কবির।বিশেষ অতিথি ও সম্মানিত অতিথি হিসেবে ছিলেন,প্রফেসর ড.সাইয়েদ রাশেদুল হাসান,ড.কর্নেল(অব) এএসএম মাঞ্জুর মোরশেদ চৌধুরী,প্রফেসর ড.মুহাম্মদ আফজাল হোসাইন এবং প্রফেসর মুজিব উদ্দিন আহমেদ (পিএইচডি)।

বক্তারা বাংলাদেশ পর্যটন এর বর্তমান ও ভবিষ্যৎ এর সম্ভাব্য বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দিক নির্দেশনা তুলে ধরেন।এ সময় প্রফেসর ড.সাইয়েদ রাশেদুল হাসান বলেন বর্তমান পৃথিবীতে প্রতি সাত জনের একজন মানুষ ঘুরে বেড়াচ্ছে বিভিন্ন কারনে। এ হিসেবে ৭০০ কোটিতে ১০০ কোটি মানুষ ঘুরে বেড়ায়।

৩৮ বছর পর ২০৫০ সালে এ সংখ্যা হবে ৪৫০ কোটি যা তখনকার মোট জনসংখ্যার অর্ধেক। আর এখন সাড়া পৃথিবীতে মোট পর্যটকের ৫০% যায়  ইউরোপে এবং ২৩% আসে এশিয়া প্যাসেফিক অঞ্চলে। আর ইউরোপে পর্যটন বিরোধী আন্দোলন এরকারনে এশিয়া প্যাসেফিক অঞ্চলে ধীরে ধীরে পর্যটন এর হার বাড়বে।সুতরাং ট্যুরিজমের ভবিষ্যৎ সম্ভাবনার কথা মাথায় রেখে টেকনিক্যাল বিষয় গুলোকে পাঠদানে মনোযোগী হতে হবে।

প্রফেসর ড.মুহাম্মদ আফজাল হোসাইন বলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর নেতৃত্ব ১৯৭২ সালে বাংলাদেশ পর্যটন বোর্ড প্রতিষ্ঠিত হয় এবং তার কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্ব বাংলাদেশ পর্যটন শিল্পকে বিকশিত করার জন্য নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে।সমাপনী বক্তব্যে ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের চেয়ারম্যান ড.বদরুজ্জামান বলেন, আমি চাই আমার শিক্ষার্থীরা যেন দেশকে নিয়ে ভাবে।দেশের কল্যাণে অবদান রাখে।

আমি আমার ডিপার্টমেন্ট এর শিক্ষার্থীদের জন্য বিভিন্ন ট্রেনিং এর ব্যবস্থা করব এবং একটি আধুনিক ল্যাব প্রতিষ্ঠা করব বলে আশ্বস্ত করে। ভবিষ্যতে পর্যটন বোর্ড এ ট্যুরিজম ডিপার্টমেন্ট এর ছাত্ররা যেন কাজ করতে পারে আমি তার ব্যবস্থা করব ইনশাআল্লাহ। তিনি আরও বলেন ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যনেজমেন্ট সাবজেক্টকে বিসিএস এর অন্তর্ভুক্ত করবেন।

প্রজন্মনিউজ২৪/সাইফুল ইসলাম

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ