ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ৬ লাখ ৭৩ হাজার কুরআন বিতরন

প্রকাশিত: ১৯ মে, ২০১৮ ১১:৩৬:৩২ || পরিবর্তিত: ১৯ মে, ২০১৮ ১১:৩৬:৩২

ইসলামিক ফাউন্ডেশনমুসলামানদের জন্য সবচেয়ে পবিত্র মাস রমজান। এবারের রমজান মাস যথাযথভাবে পালনের জন্য বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করেছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন। এসব কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে, রোজাদারদের জন্য ইফতারের আয়োজন, কুরআন শরীফ বিতরণ ও শিক্ষাদান, ইসলামি বইমেলা এবং হালাল পণ্য বিক্রয় ও প্রদর্শনী। এছাড়া রমজান উপলক্ষে বায়তুল মোকাররক মসজিদের বিশেষ আলোচনা ও তাফসির মাহফিলসহ নামাজের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

 প্রথম রমজান থেকে শুরু হওয়া এসব কর্মসূচি মাসের শেষদিন পর্যন্ত চলবে। ইসলামিক ফাউন্ডেশন সূত্রে জানা যায়, এবার রমজান মাসের প্রতিদিন চার হাজার রোজাদারের জন্য ইফতারের আয়োজন করা হয়েছে। জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের পূর্ব সাহানে এই ইফতারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ইসলাম ধর্মমতে, রমজান মাসেই পবিত্র গ্রন্থ আল কোরআন নাজিল হয়েছে। তার এই মাসে কোরআন শিক্ষা ও বিতরণ কার্যক্রম রয়েছে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের। এবছর প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে বিনামূল্যে মোট ৬ লাখ ৭৩ হাজার কুরআন বিতরণ করা হবে।

ফাউন্ডেশনের মসজিদভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা প্রকল্পের আওতায় ৬৭ হাজার ৩৬৮টি কেন্দ্রের প্রতিটিতে ১০ শিশুকে এই কোরআন দেওয়া হবে। রমজান উপলক্ষে বিনামূল্যে কোরআন শিক্ষার ব্যবস্থাও করেছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন। বায়তুল মোকাররম মসজিদে প্রথম রোজা থেকে ২৫ রোজা পর্যন্ত বয়স্কদের কুরআন শিক্ষা দেওয়া হবে। নারী ও পুরুষদের আলাদাভাবে প্রতিদিন তিনটি করে ব্যাচ করা হয়েছে। বেলা ১২টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত প্রথম ব্যাচ, দুপুর ২টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত দ্বিতীয় ব্যাচ ও বিকাল  ৫টা থেকে ৬ টা পর্যন্ত তৃতীয় ব্যাচের শিক্ষার্থীদের পড়ানো হচ্ছে।

রমজান মাসের কর্মসূচির অংশ হিসেবে বায়তুল মোকাররম মসজিদের দক্ষিণ চত্বরে মাসব্যাপী ইসলামি বইমেলার আয়োজন করা হয়েছে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত এই মেলা চলছে। এছাড়া  রমজান উপলক্ষে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের আগারগাঁও  কার্যালয়, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদসহ ফাউন্ডেশনের প্রত্যেক বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়ের বিক্রয় কেন্দ্রে বিশেষ কমিশনে ইসলামি বই বিক্রির ব্যবস্থা করা হয়েছে। মাসজুড়ে হালাল পণ্য বিক্রয় ও প্রদর্শনীর আয়োজনও করেছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন।

বায়তুল মোকাররকম মসজিদের দক্ষিণ সাহানে প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত এই পণ্য প্রদর্শনী খোলা রাখা হচ্ছে। পবিত্র রমজানে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের অন্য কর্মসূচির মধ্যে বায়তুল মোকাররম মসজিদের উত্তর সাহানে ইসলামি ক্যালিগ্রাফি, বই ও নবী করিম (সা.) এর জীবনীভিত্তিক পোস্টার প্রদর্শনী হবে। প্রতিদিন যোহর নামাজের পর থেকে মাগরিব পর্যন্ত এই প্রদর্শনী চলবে। বায়তুল মোকাররমে প্রতিদিন বাদ যোহর তাফসিরুল কুরআন মাহফিল ও প্রতিদিন তারাবীহ নামাজের আগে আলোচনা করা হবে।

এছাড়া ২০ রমজান দিবাগত রাত থেকে ২৬ রমযান দিবাগত রাত পর্যন্ত প্রতিদিন রাত ১২টা থেকে ৩টার মধ্যে কিয়ামুল লাইল নামাজে কুরআন খতম দেওয়া হবে। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ৬ লাখ ৭৩ হাজার কুরআন বিতরনের উদ্যোগ গ্রহণ ইসলামিক ফাউন্ডেশনমুসলামানদের জন্য সবচেয়ে পবিত্র মাস রমজান। এবারের রমজান মাস যথাযথভাবে পালনের জন্য বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করেছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন। এসব কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে, রোজাদারদের জন্য ইফতারের আয়োজন, কুরআন শরীফ বিতরণ ও শিক্ষাদান, ইসলামি বইমেলা এবং হালাল পণ্য বিক্রয় ও প্রদর্শনী।

এছাড়া রমজান উপলক্ষে বায়তুল মোকাররক মসজিদের বিশেষ আলোচনা ও তাফসির মাহফিলসহ নামাজের ব্যবস্থা করা হয়েছে।  প্রথম রমজান থেকে শুরু হওয়া এসব কর্মসূচি মাসের শেষদিন পর্যন্ত চলবে। ইসলামিক ফাউন্ডেশন সূত্রে জানা যায়, এবার রমজান মাসের প্রতিদিন চার হাজার রোজাদারের জন্য ইফতারের আয়োজন করা হয়েছে। জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের পূর্ব সাহানে এই ইফতারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ইসলাম ধর্মমতে, রমজান মাসেই পবিত্র গ্রন্থ আল কোরআন নাজিল হয়েছে। তার এই মাসে কোরআন শিক্ষা ও বিতরণ কার্যক্রম রয়েছে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের।

এবছর প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে বিনামূল্যে মোট ৬ লাখ ৭৩ হাজার কুরআন বিতরণ করা হবে। ফাউন্ডেশনের মসজিদভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা প্রকল্পের আওতায় ৬৭ হাজার ৩৬৮টি কেন্দ্রের প্রতিটিতে ১০ শিশুকে এই কোরআন দেওয়া হবে। রমজান উপলক্ষে বিনামূল্যে কোরআন শিক্ষার ব্যবস্থাও করেছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন। বায়তুল মোকাররম মসজিদে প্রথম রোজা থেকে ২৫ রোজা পর্যন্ত বয়স্কদের কুরআন শিক্ষা দেওয়া হবে। নারী ও পুরুষদের আলাদাভাবে প্রতিদিন তিনটি করে ব্যাচ করা হয়েছে। বেলা ১২টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত প্রথম ব্যাচ, দুপুর ২টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত দ্বিতীয় ব্যাচ ও বিকাল  ৫টা থেকে ৬ টা পর্যন্ত তৃতীয় ব্যাচের শিক্ষার্থীদের পড়ানো হচ্ছে।

রমজান মাসের কর্মসূচির অংশ হিসেবে বায়তুল মোকাররম মসজিদের দক্ষিণ চত্বরে মাসব্যাপী ইসলামি বইমেলার আয়োজন করা হয়েছে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত এই মেলা চলছে। এছাড়া  রমজান উপলক্ষে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের আগারগাঁও  কার্যালয়, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদসহ ফাউন্ডেশনের প্রত্যেক বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়ের বিক্রয় কেন্দ্রে বিশেষ কমিশনে ইসলামি বই বিক্রির ব্যবস্থা করা হয়েছে। মাসজুড়ে হালাল পণ্য বিক্রয় ও প্রদর্শনীর আয়োজনও করেছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন। বায়তুল মোকাররকম মসজিদের দক্ষিণ সাহানে প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত এই পণ্য প্রদর্শনী খোলা রাখা হচ্ছে।

পবিত্র রমজানে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের অন্য কর্মসূচির মধ্যে বায়তুল মোকাররম মসজিদের উত্তর সাহানে ইসলামি ক্যালিগ্রাফি, বই ও নবী করিম (সা.) এর জীবনীভিত্তিক পোস্টার প্রদর্শনী হবে। প্রতিদিন যোহর নামাজের পর থেকে মাগরিব পর্যন্ত এই প্রদর্শনী চলবে। বায়তুল মোকাররমে প্রতিদিন বাদ যোহর তাফসিরুল কুরআন মাহফিল ও প্রতিদিন তারাবীহ নামাজের আগে আলোচনা করা হবে। এছাড়া ২০ রমজান দিবাগত রাত থেকে ২৬ রমযান দিবাগত রাত পর্যন্ত প্রতিদিন রাত ১২টা থেকে ৩টার মধ্যে কিয়ামুল লাইল নামাজে কুরআন খতম দেওয়া হবে। 

প্রজন্মনিউজ২৪/এম রহমান

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন