আশিয়ান সিটির জমি-প্লট বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা

প্রকাশিত: ২২ অগাস্ট, ২০১৬ ১২:২১:৪৭

ঢাকা: রাজধানীর উত্তরার দক্ষিণখান মৌজায় অবস্থিত আশিয়ান সিটি আবাসিক প্রকল্পকে বৈধ ঘোষণা করে হাইকোর্টের দেওয়া রায় স্থগিত করেছে আপিল বিভাগ। একইসঙ্গে আশিয়ান সিটির ওই প্রকল্পের প্লট বিক্রি ও বিক্রির উদ্দেশ্যে পত্রিকায় বিজ্ঞাপনে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

সোমবার রাষ্ট্রপক্ষ এবং বাংলাদেশ পরিবেশ আইনজীবী সমিতির (বেলা) আবেদনের শুনানি নিয়ে প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে শুনানি করেন বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা) এর আইনজীবী ফিদা এম কামাল। সঙ্গে ছিলেন মিনহাজুল হক চৌধুরী ও রিজওয়ানা হাসান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। আশিয়ান সিটির পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ।

পরে আইনজীবীরা জানান,হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে আপিলের অনুমতি চেয়ে করা আবেদনের শুনানি না হওয়া পর্যন্ত এ স্থগিতাদেশ বহাল থাকবে। এসময়ের মধ্যে আশিয়ান সিটির ওই প্রকল্পের কোনো প্রকার বিজ্ঞাপন, প্লট বিক্রি ও কোনো ক্রেতার কাছ থেকে অর্থ গ্রহণ করা যাবে না। অর্থাৎ ওই প্রকল্পের সকল কার্যক্রমে নিষেধাজ্ঞা বলে জানান রিটকারী সংগঠন বেলার আইনজীবী মিনহাজুল হক চৌধুরী।

এর আগে ১৬ আগস্ট বিচারপতি সৈয়দ এ বি মাহমুদুল হক, বিচারপতি নাইমা হায়দার ও কাজী রেজা-উল হক বৃহত্তর রাজধানীর উত্তরার দক্ষিণখান মৌজায় অবস্থিত আশিয়ান সিটি আবাসিক প্রকল্পকে অবৈধ ঘোষণা করে হাইকোর্টের আগের দেয়া রায় বাতিল করেন হাইকোর্ট।

পরে হাইকোর্টের রায় স্থগিত ও ওই প্রকল্পে আশিয়ান সিটির কার্যক্রমে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে আবেদন করে রাষ্ট্র ও বেলা। ১৮ আগস্ট চেম্বার বিচারপতি ২২ আগস্ট আপিল বিভাগে শুনানির জন্য পাঠিয়ে দেন।

২০১২ সালের ২২ ডিসেম্বর রাজধানীর উত্তরার দক্ষিণখান মৌজায় অবস্থিত আশিয়ান সিটি আবাসিক প্রকল্পকে দেওয়া রাজউকের অনুমোদন এবং পরিবেশ অধিদপ্তরের দেওয়া আসিয়ান সিটির অবস্থানগত ছাড়পত্রের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে একাধিক মানবাধিকার ও পরিবেশবাদী সংগঠন হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করে।

২০১২ সালে আদালতে রিট আবেদনটি দায়ের করেছিলেন, আইন ও সালিশ কেন্দ্র(আসক), অ্যাসোসিয়েশন ফর ল্যান্ড রিফর্ম এন্ড ডেভেলপমেন্ট, বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা), ব্লাস্ট, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন, ইনস্টিটিউট অব আর্কিটেক্ট বাংলাদেশ, নিজেরা করি, পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলনসহ ৮টি সংগঠন।

 

 

- See more at: http://www.m.rtnn.net//newsdetail/detail/1/3/150904#sthash.jPepqKEj.dpuf

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন





ব্রেকিং নিউজ