নিষিদ্ধ পিরানহায় অসচেতনতা

রুপচাদার নামে বিক্রি হচ্ছে ক্ষতিকর পিরানহা!

প্রকাশিত: ২৫ এপ্রিল, ২০১৭ ০১:১১:৫৮ || পরিবর্তিত: ২৫ এপ্রিল, ২০১৭ ০১:১১:৫৮

নুর মোহাম্মদ: রাজধানীসহ সারাদেশের বাজারে দেশি রুপচাদার নামে বিক্রয় হচ্ছে ক্ষতিকারক ও নিষিদ্ধ পিরানহা মাছ। বিষাক্ত ও ক্ষতিকর হওয়ায় সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে অবাধেই উৎপাদন ও বিপনণ হচ্ছে পিরানহা মাছ।

এদিকে এ মাছের ক্ষতিকর দিক ও নিষিদ্ধ থাকার প্রচারণা না থাকায় মানুষ প্রতিদিনই এসব মাছ খাচ্ছে। শুধু রাজধানী নয়, এরই মধ্যে দেশের বিভিন্ন জেলায় এর চাহিদা বেড়ে চলেছে। এ কারণেই রূপচাদা বলে পিরানহা মাছ বেচা কেনা হলেও মৎস্য বিভাগ ও পুলিশ প্রশাসন রয়েছে নীরব।

 

সরকারিভাবে চাষ নিষিদ্ধ এবং দেশীয় মাছের জন্য চরম ক্ষতিকর আফ্রিকার রাক্ষুসে পিরানহা মাছের ডিম উৎপাদন ও চাষ অব্যাহত রয়েছে। অধিক মুনাফার আসায় এক শ্রেণির মৎস্য ব্যবসায়ী মৎস্য বিভাগের সাথে আঁতাত করে ক্ষতিকর পিরানহা মাছের চাষ ও বাজারজাত করছে।

পিরানহা মাছ বিক্রেতা জানান, ‘পিরানহার বিষয়ে এতো কিছু জানিনা। তবে লাভ বেশি। বিভিন্ন মাছগুলোর সাথে পিরানহা না কিনলে চাষিরা ব্যবসায়ীদের কাছে মাছ বিক্রয় বন্ধের হুমকি দেয়। অনেক ক্রেতা এ মাছ না কিনতে চাইলেও আমাদের বাধ্য হয়েই নিতে হয়।’

মৎস সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ক্ষতিকর পিরানহা মাছ চাষ অব্যাহত থাকে ও খাল বিল নদী নালায় ছড়িয়ে পড়ে তবে ভবিষ্যতে খাল বিলে নদীতে তবে দেশি মাছসহ অন্যান্য কোন মাছই আর না থাকার আশঙ্কা রয়েছে। এ কারণেই ভয়াবহ ক্ষতিকর এই পিরানহা মাছ চাষ ও বাজারজাত করণে প্রশাসনের আরও কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা প্রয়োজন।

 

 

জীববৈচিত্র্যের ক্ষতিকর এই রাক্ষুসে মাছ আমদানি, বাজারজাত ও বিক্রি বাংলাদেশে সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। কিন্তু তা সত্তেও কিছু অসাধু ব্যবসায়ী এসব মাছ বিক্রি করছে প্রকাশ্যে। বেশি লাভের আশায় তারা ওই মাছকে রূপচাঁদা মাছ বলে বিক্রি করছে। এতে বোকা বনে প্রতিনিয়ত প্রতারিত হচ্ছে সাধারন লোকজন। এই নিষিদ্ধ মাছ প্রকাশ্যে বিক্রি হলেও নজরদারী নেই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের।

উল্লেখ্য, পিরানহা মাছ অত্যন্ত রাক্ষুসে স্বভাবের হওয়ায় দেশীয় প্রজাতির জীববৈচিত্র্যের জন্য খুবই ক্ষতিকর। রাক্ষুসে ছাড়াও মানুষ খেকো হওয়ায় ২০০৭ সালে এ মাছ সংরক্ষণ, বিপনন, প্রজনন ও প্রদর্শণ সম্পূর্ণভাবে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

 

 

পিরানহা নামের মাছটি মূলত আমাজন নদীর একটি ভয়ঙ্কর মাছ। মানুষখেকো হিসেবেও অনেকে এই মাছটিকে চেনে। পিরানহা ভয়ংকর এবং দল বেধে চলে। পিরানহা মাছ তাদের খোরদার দাঁত দিয়ে মাত্র কয়েক মিনিটে মানুষের হাড় থেকে মাংস আলাদা করে ফেলে।

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন